Are you want to buy this website. We want to sell this Website with this design & files.
 
Science
{:en}

Humans have always been curious about the world around them. The glow of the dark night sky has shocked people. And people are always worried about this form of the world’s wealth and try to unravel it. How are the days and nights, the year recurring, the rainbows seen in the sky, etc.? In the midst of trying to unravel the phenomenon of nature, people are searching for one and all the wonders of world nature. The science of this quest is science, and the main key or branch of science is physics.

The word Science comes from the Latin word “Scientia” meaning “to know.” The Sanskrit word “Vijnan” and the Arabic word “Ilm” convey the same meaning. Common sense is “knowledge”.

And science means –

“Science is the knowledge acquired through experimentation, observation and insertion.”

Science is divided into two classes.

Namely: 1) Physics
         2) Biology

Physics: – The branch of science in which the material, which is non-life-matter, is discussed, it is called physics.

There are two types of physics.
1) Physics
2) Chemistry

Biology: – The branch of science in which the organism is discussed is called biology.
Biology has two parts.
3) Plant science
2) Zoology

{:}{:bn}

মানুষ সব সময় তার চারপাশের বিশ্ব নিয়ে কৌতুহলী ছিল। অন্ধকার রাতের আকাশের প্রজ্বলিত তারা মানুষকে করেছে হতভম্ব। আর মানুষ সব সময় বিশ্বের আশ্বর্য এই রুপ দেখে চিন্তিত ও একে উদঘাটন করার চেষ্টা করে। কিভাবে দিন ও রাত হয়, বর্ষের পুনঃরাবৃত্তি ঘটে, আকাশে রংধনু দেখা যায় ইত্যাদি? এই সব ঘটনাকে কেন্দ্র করে মানুষ প্রকৃতির ঘটনা উদঘাটন করার প্রচেষ্টায় নেমে পরে এবং সেখান থেকে একেকজন একেকভাবে খুজতে থাকে বিশ্ব প্রকৃতির সব আশ্বর্যকে। এই খোজা-খুজির ফসল হলো বিজ্ঞান, আর বিজ্ঞানের প্রধান বা মুল চাবিকাঠি বা শাখা হলো পদার্থবিজ্ঞান।

বিজ্ঞান শব্দটি এসেছে ল্যাটিন শব্দ “Scientia” এর অর্থ “জানা”। সংস্কৃত শব্দ “ ভিঞ্জ্যান” ও আরবি শব্দ “ইলম” এর একই অর্থ প্রকাশ করে। সাধারণ অর্থ “জ্ঞান”।

আর বিজ্ঞান বলতে বুঝায়-

            “পরীক্ষা-নিরীক্ষা, পর্যবেক্ষণ ও সন্নিবেশের মাধ্যমে অর্জিত জ্ঞানকে বিজ্ঞান বলে।”

বিজ্ঞান কে দুই শ্রেণীতে ভাগ করা হয়।

যথা- ১) ভৌতবিজ্ঞান        ২) জীববিজ্ঞান

ভৌতবিজ্ঞান বা জড়বিজ্ঞানঃ- বিজ্ঞানের যে শাখায় ভৌত তথা জড় পদার্থ অর্থাৎ যাদের জীবন নেই এমন সব বস্তু সম্পর্কে আলোচনা করা হয়, তাকে ভৌত বা জড়বিজ্ঞান বলে।

জড় বা ভৌতবিজ্ঞান দুই প্রকার।

১) পদার্থ বিজ্ঞান ২) রসায়ন বিজ্ঞান

জীববিজ্ঞানঃ- বিজ্ঞানের যে শাখায় জীবের সম্পর্কে আলোচনা করা হয়, তাকে Biology বা জীববিজ্ঞান বলে।

জীববিজ্ঞান এর দুটি ভাগ আছে।

১) উদ্ভিদ বিজ্ঞান ২) প্রাণিবিজ্ঞান

{:}